সেনা ও ‘না’ ভোট চালুর পরামর্শ

0
53

একাদশ সংসদ নির্বাচন ভয়মুক্ত ও সবার অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার মাধ্যমে নির্বাচন কমিশনকে তাদের ভাবমূর্তি পুনরুদ্ধারের তাগিদ দিয়েছেন নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা। একাদশ সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে আইন সংস্কার, সীমানা পুনর্নির্ধারণসহ ঘোষিত রোডম্যাপ নিয়ে নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে সংলাপে তারা এ মত তুলে ধরেন।তবে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের (সিইসি) সভাপতিত্বে গতকাল সোমবার বেলা ১১টা থেকে নির্বাচন ভবনে এ সংলাপে আমন্ত্রিত ৫৯ জনের মধ্যে প্রায় অর্ধেকই উপস্থিত ছিলেন না।

সংলাপে অংশ নেওয়া একাধিক বিশিষ্টজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, নির্বাচনে সেনা মোতায়েন, ‘না’ ভোটের বিধান চালু করা, ইসির নিজস্ব কর্মকর্তা থেকে রিটার্নিং কর্মকর্তা নিয়োগ, সবার জন্য সমান সুযোগ নিশ্চিত করতে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া, সংলাপে হলফনামায় প্রার্থীর দেওয়া তথ্য পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা, অভিযোগ দ্রুত নিষ্পত্তি করা, প্রশাসন ঢেলে সাজানো, মনোনয়ন বাণিজ্য নজরদারি করা, প্রবাসীদের ভোটার করা-এ ধরনের সুপারিশও এসেছে। নির্বাচনকালীন সংসদ ভেঙে দেওয়ার প্রস্তাবও এসেছে। আলোচনার জন্য পর্যাপ্ত সময় ছিল না। এ জন্য অনেকে লিখিত বক্তব্য জমা দিয়েছেন। পরবর্তী সময়ে লিখিত  বিস্তারিত…