নির্যাতনমূলক আইনটি সম্পূর্ণ বাতিল হচ্ছে না

আইসিটির ৫৭ ডিজিটালের ১৯, ২০

0
24

তথ্যপ্রযুক্তি আইনের (আইসিটি) ‘৫৭ ধারা’ কিছুটা পরিমার্জন করে প্রস্তাবিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে প্রতিস্থাপন করা হচ্ছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। এতদিন সরকারের পক্ষ থেকে বিতর্কিত ‘৫৭ ধারা’ বাতিলের কথা বলা হলেও ওই অবস্থান থেকে কিছুটা সরে আসার ইঙ্গিত পাওয়া গেছে। আইনমন্ত্রী আনিসুল হক গতকাল জানিয়েছেন, আইসিটি আইন থেকে বিতর্কিত ‘৫৭ ধারা’ সরিয়ে তা প্রস্তাবিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে রাখা হবে কি না- আগামী আগস্টে সে ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। অর্থাৎ বিতর্কিত ৫৭ ধারা থাকছে না এটা তিনি নিশ্চিত করেননি। এই আইনের ৫৭ ধারা যতক্ষণ আছে, ততক্ষণ যদি এই ধারায় কোন অপরাধ হয়, তাহলে মামলা করা যাবে বলে জানান মন্ত্রী।ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের খসড়া চূড়ান্ত করার লক্ষ্যে গতকাল সচিবালয়ে এক আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান আইনমন্ত্রী।এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘সভায় ‘ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্ট’ নিয়ে যে আলাপ-আলোচনা হয়েছে, সেখানে অনেক কিছুই এসেছে। তবে চূড়ান্ত নিদ্ধান্ত হয়নি।

আজকের আলোচনায় যেসব কথাবার্তা এসেছে, তার একটা রূপরেখা করে ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্টের মধ্যে এনে আমরা আগামী আগস্ট মাসে এটার একটা ড্রাফট নিয়ে আবার মিটিংয়ে বসব। সেই মিটিংয়ে বসে আমরা চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেব। সেখানে ৫৭ ধারা সম্পর্কে আমাদের সিদ্ধান্ত আপনারা পাবেন।’ আইসিটি আইনের ৫৭ ধারাকে স্বাধীন সাংবাদিকতার পরিপন্থী  বিস্তারিত…