তুফানসহ ৩ আসামি রিমান্ডে : গ্রেফতার আরও ৬

তুফান সংগঠন থেকে বহিষ্কার * ধর্ষণের শিকার কিশোরী ছাত্রীর দায়িত্ব নিল সরকার * ‘রিমান্ডে যেভাবে মানুষকে মারে ওরা আমাদের সেভাবে মেরেছে’

0
56

বাড়ি থেকে ক্যাডার দিয়ে তুলে নিয়ে কিশোরী ছাত্রী ধর্ষণ এবং মা-মেয়েকে ন্যাড়া ও নির্যাতনের ঘটনায় বগুড়ায় তোলপাড় শুরু হয়েছে। দলমত নির্বিশেষে স্থানীয় সবাই প্রতিবাদে ফেটে পড়েছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরাও তৎপর হয়ে উঠেছে। এ ঘটনায় মামলার প্রধান আসামি শ্রমিক লীগের আহ্বায়ক তুফান সরকার, তার সহযোগী রূপম ও দিপুকে তিন দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। গ্রেফতার আতিকুর রহমান সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আবদুল্লাহ আল মামুনের কাছে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়ায় তাকে রিমান্ডে নেয়া হয়নি। রোববার রাতে মামলার ২ নম্বর আসামি ও সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর মার্জিয়া হাসান রুমকি ও তার মা রুমা খাতুনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বগুড়া ডিবি পুলিশের একটি দল পাবনা শহর থেকে তাদের গ্রেফতার করে। তুফানের স্ত্রী আশা খাতুন এখনও পলাতক। রুমকির বাবা রুনুকে বগুড়ার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়।

বগুড়ায় কলেজে ভর্তি করিয়ে দেয়ার নামে ছাত্রী (১৭) ধর্ষণের হোতা তুফানকে সংগঠন থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। রোববার দুুপুরে জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এ সিদ্ধান্তের কথা জানান। এদিকে জেলা প্রশাসক (ডিসি) ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেছেন। একই সঙ্গে তিনি নির্যাতনের শিকার  বিস্তারিত…